সৈয়দপুরকে সিঙ্গাপুর বানানো হবে: নানক



সিনিয়র করেসপন্ডেন্ট, বার্তা২৪.কম, ঢাকা
জাহাঙ্গীর কবির নানক। ছবি: বার্তা২৪.কম

জাহাঙ্গীর কবির নানক। ছবি: বার্তা২৪.কম

  • Font increase
  • Font Decrease

উন্নয়নে পিছিয়ে থাকা সৈয়দপুরের আধুনিকায়নে পৌরসভা নির্বাচনে নৌকার পক্ষে ভোট চাইলেন আওয়ামী লীগের সভাপতিমন্ডলীর সদস্য জাহাঙ্গীর কবির নানক। তিনি বলেছেন, ‘সৈয়দপুরকে ঢেলে সাজাতে চান আমাদের নেত্রী প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। তিনি এই সৈয়দপুরকে আধুনিক সৈয়দপুরে রূপান্তরিত করার জন্য বিমানবন্দরকে আন্তর্জাতিক মানের বিমানবন্দরে পরিণত করতে চান। আমাদের নেত্রী এই সৈয়দপুরকে এই অঞ্চলের সিঙ্গাপুর বানাতে চান। কারণ এই সৈয়দপুর হল আটটি জেলার প্রবেশদ্বার। এই আটটি জেলার মানুষেরা সৈয়দপুর হয়ে যাতায়াত করে।’

শুক্রবার (২৬ ফেব্রুয়ারি) সৈয়দপুর পৌরসভা নির্বাচনে আগামী ২৮ নৌকা মার্কার প্রার্থীর পক্ষে বিভিন্ন নির্বাচনি পথসভায় অংশ নিয়ে তিনি একথা বলেন। সৈয়দপুরের তামান্না মোড়ে নির্বাচনি পথসভায় তিনি একথা বলেন। তার আগে দুপুরে শহরের অফিসার্স ক্লাব প্রাঙ্গনে নৌকা মার্কার সমর্থনে উর্দুভাষী ক্যাম্পবাসীদের নিয়ে আয়োজিত পথসভায় প্রধান অতিথি হিসাবে অংশ নেন।

জাহাঙ্গীর কবির নানক সৈয়দপুরে নৌকার প্রার্থীর পক্ষে বিভিন্ন পথসভায় অংশ নিয়ে পৌরসভার উন্নয়নে নৌকায় ভোট দেয়ার আহ্বান জানান। সৈয়দপুরে পৌরসভা নির্বাচনে নৌকার প্রার্থী হলেন রাফিকা জাহান আকতার বেবী।

সৈয়দপুরবাসীকে নৌকার প্রার্থীকে বিজয়ী করার আহ্বান জানিয়ে নানক বলেন, ‘এই নির্বাচনের মধ্যে দিয়ে সরকারের পতন হবে না। সরকারের মেয়াদ আরও ৫ বছর বৃদ্ধি পাবে না। কিন্তু এই নির্বাচন সৈয়দপুর পৌরবাসীর জন্য অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ। কারণ এই সৈয়দপুরে দীর্ঘদিন যাবৎ আওয়ামী লীগের কোন মেয়র প্রার্থী জয়লাভ করে নাই।

সৈয়দপুরের উন্নয়নে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা সরকারের বিভিন্ন উন্নয়ন পদক্ষেপ ও আগ্রহের বিভিন্ন কথা তুলে ধরেন নানক। একই সাথে বিগত সময়ে সৈয়দপুর পৌরসভার বিভিন্ন দুর্ভোগ দুরাবস্থার কথা তুলে ধরেন এবং ২৮ তারিখের ভোটে নৌকার প্রার্থীকে জয়যুক্ত করার আহ্বান জানান।

সৈয়দপুরের উর্দুভাষীদের উদ্দেশ্যে নানক বলেন, ‘আমি ঢাকার মোহাম্মদপুরে এমপি ছিলাম, আমাকে শেখ হাসিনা নির্দেশ দিয়েছিলেন মোহাম্মদপুরের জেনেভা ক্যাম্পসহ উর্দুভাষী ক্যাম্পগুলোর জীবনমান উন্নয়ন করতে হবে। আমি শেখ হাসিনার নির্দেশ পেয়ে সমস্ত ক্যাম্পগুলোর জীবনমান উন্নয়ন করেছিলাম। তাই সৈয়দপুরে এ অবস্থা চলতে পারে না। শেখ হাসিনা এ অবস্থা থাকতে দিতে চান না। শেখ হাসিনা হচ্ছেন মানবতার নেত্রী। মিয়ানমারের বাস্তুচ্যুত রোহিঙ্গাদের আশ্রয় দিয়েছেন। নির্যাতিত রোহিঙ্গাদের আশ্রয় দিয়ে মাথা গোঁজার ঠাঁই দিয়েছেন। ভাসানচরে ঘরবাড়ি তৈরি করে দিয়ে বসবাস করার ব্যবস্থা করেছেন।’

সৈয়দপুরবাসীকে আগামী ২৮ তারখি সঠিক সিদ্ধান্ত নেয়ার আহ্বান জানিয়ে নানক বলেন, ‘আপনাদের ভোট একটি মূল্যবান সম্পদ। এই ভোট সঠিক জায়গায় দিতে হবে। কোন প্রলোভনে কোন কারণে যদি ভুল করেন, তাহলে সৈয়দপুর যে তিমিরে পড়ে আছে, সেই তিমিরেই পড়ে রবে।’

সৈয়দপুর উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি ও উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান মোখছেদুল মোমিনের সভাপতিত্বে নির্বাচনি সভায় উপস্থিত ছিলেন- বাংলাদেশ মহিলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক মাহমুদা বেগম কৃক, রংপুর মহানগর আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক তুষার মন্ডল, নীলফামারী জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি ও পৌর মেয়র দেওয়ান কামাল আহমেদ, সাধারণ সম্পাদক ও জেলা আইনজীবি সভাপতি মমতাজুল হক, উপজেলা সাধারণ সম্পাদক মহসিনুল হক মহসিন, উপজেলা পরিষদের মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান সানজিদা বেগম লাকীসহ স্থানীয় নেতারা।