শেরপুরে শিশুকে পানিতে ফেলে হত্যার অভিযোগ



ডিস্ট্রিক্ট করেসপন্ডেন্ট, বার্তা২৪.কম, শেরপুর
শিশুকে পানিতে ফেলে হত্যার অভিযোগ মায়ের বিরুদ্ধ। ছবি: বার্তা২৪.কম

শিশুকে পানিতে ফেলে হত্যার অভিযোগ মায়ের বিরুদ্ধ। ছবি: বার্তা২৪.কম

  • Font increase
  • Font Decrease

শেরপুর শহরের নওহাটা এলাকায় আরাফাত তাছিন নামে সাত মাসের এক শিশুকে পানিতে ফেলে হত্যার অভিযোগ উঠেছে মা নুরুন্নাহারের বিরুদ্ধে।

বুধবার (২ ডিসেম্বর) সকালে বাড়ির পাশে একটি পুকুর থেকে তার মরদেহ উদ্ধার করে পুলিশ।

লাশ উদ্ধারের সময় স্থীনীয় লোকজন। ছবি: বার্তা২৪.কম

পুলিশ ও স্থানীয়রা জানায়, শহরের নওহাটা এলাকার বাসিন্দা ও রড-সিমেন্ট ব্যবসায়ী আবু সামা ও নুরুন্নাহার দম্পতির ৪ ছেলে-মেয়ে। এদের মধ্যে গত সাত মাস আগে সিজারিয়ান অপারেশনের মাধ্যমে আরাফাত তাসিন জন্ম নেয়। তাসিনের জন্মের পর থেকেই মা নুরুন্নাহার অসুস্থ ও অস্বাভাবিক আচরণ করতো। তাই শিশু তাহসিনকে লালন পালন করতো তার বড় বোন আফসানা শ্রাবনী।

অভিযোগ, গেল রাতে সবাই ঘুমিয়ে পড়লে কোন এক সময় নুরুন্নাহার তার ছেলে আরাফাত তাহসিনকে নিয়ে হত্যা করে বা হত্যার উদ্দেশ্যে পাশ্ববর্তী পুকুরে ফেলে দিয়ে পালিয়ে যায়। সকালে খোঁজাখুঁজির একপর্যায়ে পুলিশ বাড়ির পাশে পুকুর থেকে ওই শিশুর মরদেহ উদ্ধার করে। এ বিষয়ে আইনগত ব্যবস্থা নেওয়ার প্রস্তুতি চলছে বলে জানান সদর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা মোহাম্মদ আব্দুল্লাহ আল মামুন।

নিহত তাসিনের বোন লাবনী জানান, ‘আরাফাত তাসিন জন্ম নেওয়ার পর থেকে তার মার মাথায় সমস্যা হয়েছে এজন্য পাগলের মতো আচরণ করতো। ঘুমাইতো না। ঠিক মতো খাইতো না। রাতে ঘুমাতে গিয়ে হঠাৎ করেই মা’র কোন খোঁজ নেই।’

শেরপুর সদর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা আব্দুল্লাহ আল মামুন ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে বলেন, স্থানীয়দের মাধ্যমে খবর পেয়ে বাড়ির পাশে পুকুর থেকে ওই শিশুর মরদেহ উদ্ধার করি। ঘটনার পর থেকে তার মা পলাতক রয়েছে। এ ব্যাপারে আইনগত ব্যবস্থা নেওয়ার প্রস্তুতি চলছে।